বুধবার , ১৬ আগস্ট ২০২৩ | ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ঈশ্বরদী
  5. করোনাভাইরাস
  6. কৃষি
  7. ক্যাম্পাস
  8. খেলাধুলা
  9. গল্প ও কবিতা
  10. চাকরির খবর
  11. জাতীয়
  12. তথ্যপ্রযুক্তি
  13. তারুণ্য
  14. ধর্ম
  15. নির্বাচন

ঈশ্বরদীতে জামায়াতের ১১ নেতাকর্মী আটক

প্রতিবেদক
আমাদের ঈশ্বরদী রিপোর্ট :
আগস্ট ১৬, ২০২৩ ১১:০০ অপরাহ্ণ

পাবনার ঈশ্বরদীতে নাশকতা সৃষ্টির অভিযোগে জামায়াতে ইসলামীর নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। আজ বুধবার দুপুরে ঈশ্বরদী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোঃ কামরুজ্জামান বাদী হয়ে বিস্ফোরক দ্রব্য ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলাটি করেন।

মামলায় ১১ নেতা-কর্মীর নাম উল্লেখ করে আসামি করা হয়েছে। সবাইকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

মামলার এজাহারে জামায়াতে ইসলামী ও ছাত্র শিবিরের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে নাশকতার উদ্দেশ্যে গোপন বৈঠকের অভিযোগ করা হয়েছে। তবে জামায়াতের নেতারা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, জনস্রোত ঠেকাতে সরকার পুলিশকে দিয়ে ‘মিথ্যা ও গায়েবি’ মামলা দিচ্ছে।

মামলার সংক্ষিপ্ত এজাহারে উল্লেখ করা হয়, মঙ্গলবার রাতে উপজেলা ছলিমপুর ইউনিয়নের শেখেরদাইড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাঙ্গণে জামায়াতে ইসলামী ও ছাত্র শিবিরের নেতা-কর্মীরা জড়ো হয়ে নাশকতার পরিকল্পনা করছিলেন। তাঁরা সরকার পতনের জন্য বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি স্থাপনা ভাঙচুর, রেললাইন উৎপাটন, রেলস্টেশন ও বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রে অগ্নিসংযোগ করার পরিকল্পনা করছিলেন। খবর পেয়ে ঈশ্বরদী থানা-পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে নেতা-কর্মীরা পালিয়ে যান। এ সময় সেখান থেকে মো. আব্দুল বাতেন (৪০), মো. আব্দুল মজিদ (৬৩), মো. আব্দুল আজিজ (৬০), মো. মামুন হোসেন (৩৫), মো. মজিবুর রহমান (৬২), মো. ফরিদ আহমেদ (৬০), মো. শাহান আলী (৩২), মো. ইয়াছির আরাফাত ওরফে সুজন মাষ্টার (৩৬), হাফেজ মো. ইনতাজ উদ্দিন (৬২) মো. শামীম হোসেন (২৬) ও মো. মোস্তফা কামাল (৩৫) আটক করে পুলিশ।

এজাহারে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে চারটি অবিস্ফোরিত ককটেল, বস্তাবন্দী ২০টি ইটের টুকরা ও ১৫টি বাঁশের লাঠি জব্দের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার ফরিদ আহমেদের এক আত্মীয় নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘আমার ভাই জামায়াতের সদস্য ঠিক। কিন্তু তিনি কোনো অপরাধের সঙ্গে জড়িত না। পুলিশ তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়েছে।’

অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা জামায়াতের আমির গোলাম রব্বানি খান জোবায়ের বলেন, ‘আমাদের জনস্রোত ঠেকাতে সরকার জামায়াতের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে পুলিশকে দিয়ে গায়েবি মামলা করেছে। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই।’

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোঃ কামরুজ্জামান বলেন, গ্রেপ্তার ১১ জনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মামলার অন্য ব্যক্তিদের পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে।

সর্বশেষ - ঈশ্বরদী

error: Content is protected !!