বৃহস্পতিবার , ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. 1Win AZ Casino
  2. 1win Brazil
  3. 1winRussia
  4. mostbet tr
  5. অর্থনীতি
  6. আইন ও আদালত
  7. আন্তর্জাতিক
  8. ঈশ্বরদী
  9. করোনাভাইরাস
  10. কৃষি
  11. ক্যাম্পাস
  12. খেলাধুলা
  13. গল্প ও কবিতা
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয়

চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রায় হাঁসফাঁস ঈশ্বরদীর জনজীবন

প্রতিবেদক
আমাদের ঈশ্বরদী রিপোর্ট :
এপ্রিল ১৮, ২০২৪ ১১:২১ অপরাহ্ণ

পাবনার ঈশ্বরদীতে চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪০ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা। প্রচন্ড খরতাপে হাঁসফাঁস করছে ঈশ্বরদীর জনজীবন, চলছে তীব্র তাপপ্রবাহ।

বুধবার(১৭ এপ্রিল) বিকাল ৩টায় ঈশ্বরদীতে ৪০ দশমিক ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন ঈশ্বরদী আবহাওয়া পর্যবেক্ষনাগারের সহকারি পর্যবেক্ষক নাজমুল হক রঞ্জন।

ঈশ্বরদী আবহাওয়া পর্যবেক্ষনাগার সূত্রে জানা গেছে গত ৫ দিন যাবত ঈশ্বরদীতে মাঝারি তাপপ্রবাহ বয়ে চলেছে। গত ১৩ এপ্রিল তাপমাত্রা ৩৮ দশমিক ৫ ডিগ্রী, ১৪ এপ্রিল ৩৯ ডিগ্রী, ১৫ এপ্রিল ৩৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি, ১৬ এপ্রিল ৩৯.৮ ডিগ্রী , ১৭ এপ্রিল ৪০ দশমিক ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। ১৩ থেকে ১৬ এপ্রিল টানা ৪ দিন মাঝারি তাপপ্রবাহের পর ১৭ এপ্রিল তীব্র তাপপ্রবাহ শুরু হয়েছে।

এদিকে, তীব্র তাপ প্রবাহের কারণে ঈশ্বরদীর বাতাসে বইছে আগুনে হল্কা। টানা তাপপ্রবাহে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। সবচেয়ে বেশি বিপদে পড়েছেন নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া দিনমজুর শ্রেণীর মানুষ। রোদের তীব্রতায় পিচঢালা সড়ক থেকে উষ্ণ তাপ ছড়িয়ে পড়ছে। রিকশা ও অটোচালকদের সড়কে চলাচল কষ্ট সাধ্য হয়ে পড়েছে।

ঈশ্বরদী জংসন স্টেশনের ইয়ার্ডে কর্তব্যরত আনসার বাহিনীর সদস্য ওয়াসিম বলেন, প্রচন্ড রোদের মধ্যে দাঁড়িয়ে ডিউটি করছি। এটি আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য। আজ এমনিতেই ঈশ্বরদীতে প্রচন্ড গরম তারপর রেল লাইন ও ইয়ার্ড এলাকায় গরমের মাত্রা আরো বেশি। প্রচন্ড গরমে ডিউটি করতে খুব কষ্ট হচ্ছে।

পথচারী খায়রুল ইসলাম কিরণ বলেন, যোহরের নামাজ পড়ার জন্য মসজিদের যাওয়ার জন্য বের হয়েছিলাম। পথে রোদের তীব্রতা দেখে বাড়িতে ঘুরে গিয়ে আবার ছাতা নিয়ে এসেছি। মসজিদে নামাজ পড়ার পর কিছুক্ষণ মসজিদে শুয়ে থেকে বের হলাম। সড়ক দিয়ে মনে হচ্ছে আগুন বের হচ্ছে।

ঈশ্বরদী প্রেসক্লাব সংলগ্ন সড়কে দাঁড়িয়ে ছিলেন রিকশাচালক জমিরউদ্দীন। তিনি বলেন, রোদে খুব গরম লাগছে। রাস্তায় রিকশা চালানো যাচ্ছে না। খুব কষ্ট হচ্ছে। মাথার উপর ছাতা লাগানোর পরেও গরম লাগছে। অতিরিক্ত রোদ আর গরমে বাইরে মানুষের সমাগম খুবই কম। এতে আমাদের ভাড়া কম হচ্ছে।

মহানগর ট্রান্সপোর্ট এজেন্সির শ্রমিক আজাহার আলী বলেন, গরমে জীবনই চলে না কাজ করবো কি করে? তবুও জীবিকার তাগিদে কাজ করছি। প্রচন্ড তাপমাত্রায় চলতে খুব কষ্ট হচ্ছে।
ঈশ্বরদী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণার অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হেলাল উদ্দিন জানান, সপ্তাহ জুড়ে ঈশ্বরদীতে তাপপ্রবাহ বিরাজমান করছে। গত কয়েকদিন ধরে তাপমাত্রা ৩৮ডিগ্রী সেলসিয়াস থেকে ৪০ দশমিক ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস পর্যন্ত উঠানামা করছে। এটি চলতি মৌসুমে ঈশ্বরদীর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

সর্বশেষ - ঈশ্বরদী

error: Content is protected !!