শনিবার , ২৭ এপ্রিল ২০২৪ | ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. 1Win AZ Casino
  2. 1win Brazil
  3. 1winRussia
  4. mostbet tr
  5. অর্থনীতি
  6. আইন ও আদালত
  7. আন্তর্জাতিক
  8. ঈশ্বরদী
  9. করোনাভাইরাস
  10. কৃষি
  11. ক্যাম্পাস
  12. খেলাধুলা
  13. গল্প ও কবিতা
  14. চাকরির খবর
  15. জাতীয়

দূর্ঘটনার আশঙ্কা
অতি তীব্র তাপপ্রবাহে ঈশ্বরদীতে সড়কের পিচ গলে যাচ্ছে

প্রতিবেদক
আমাদের ঈশ্বরদী রিপোর্ট :
এপ্রিল ২৭, ২০২৪ ৮:২৮ অপরাহ্ণ

পাবনার ঈশ্বরদীতে অতি তীব্র তাপপ্রবাহে সড়কের পিচ গলে যাচ্ছে। টানা ১৫ দিনের তাপপ্রবাহে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি থেকে ৪২ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ওঠানামা করছে।

ঈশ্বরদী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের সহকারী পর্যবেক্ষক নাজমুল হক রঞ্জন বলেন, গতকাল শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) বিকেল ৩টায় ঈশ্বরদীতে ৪২ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। এটি চলতি মৌসুমে ঈশ্বরদীর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

টানা দাবদাহে ঈশ্বরদীর জনজীবনে স্থবিরতা নেমে এসেছে। প্রয়োজন ছাড়া মানুষ বাড়ি থেকে বের হচ্ছে না। তীব্র তাপপ্রবাহে সবচেয়ে বিপদে পড়েছেন নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া মানুষ। রোদের তীব্রতায় পিচঢালা সড়ক থেকে উষ্ণ তাপ ছড়িয়ে পড়ছে মানুষের চোখে মুখে।

তীব্র দাবদাহে ঈশ্বরদী শহরের পোস্ট অফিস মোড়ে ঈশ্বরদী-পাবনা সড়কের পিচ গলে যাচ্ছে। সড়কে চলা যানবাহনের চাকার সঙ্গে লেগে যাচ্ছে গলে যাওয়া পিচ। তাই বেশিরভাগ যানবাহন খুব সতর্কতার সঙ্গে পিচ গলে যাওয়া জায়গাগুলো অতিক্রম করছে। পিচ গলে যাওয়া সড়কে বালু ছিটিয়ে চলাচলের উপযোগী করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মচারীরা।

স্থানীয় বাসিন্দা আসাদুর রহমান বীরু বলেন, ঈশ্বরদীতে অতি তাপমাত্রার জন্য সড়কের পিচ গলে যাচ্ছে।পিচগলা পিচ্ছিল সড়কে চালকরা খুব সাবধানে গাড়ি চালাচ্ছেন। এখানে এলেই গাড়ির চালকরা দূর্ঘটনার আতঙ্কে গাড়ির গতি কমিয়ে দেন।

খায়রুল আলম নামে একজন জানান, প্রায় ৭ দিন ধরে বেলা সাড়ে ১১টার পর থেকে রাস্তার পিচ গলতে শুরু করেছে। দুপুর গড়ানোর পর রাস্তার পিচ গলে সড়কে রিকশা, অটোবাইক, মোটরসাইকেল সহ সব যানবাহনের চাকায় লেগে যায়। এতে তাদের দুর্ঘটনার ঝুঁকি বাড়ে, রাস্তাও উঁচু-নিচু হয়ে যাচ্ছে।

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছে, সাধারণত সড়কে যে পিচ ব্যবহার করা হয় তা ৬০-৭০ গ্রেডের। এর গলনাঙ্ক ৪৮ থেকে ৫২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। অর্থাৎ তাপমাত্রা ৪৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে উঠলে পিচ গলার কথা। কিন্তু তার অনেক আগেই পিচ গলে যাচ্ছে।

এদিকে সওজ সংশ্লিষ্ট সূত্র পিচ গলার কারণ হিসেবে দাবি করেছে, তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির ওপরে থাকলে বাতাসের আদ্রতার কারণে অনুভূতির পরিমাণ আরও কয়েক ডিগ্রি বেশি হয়। সড়কের পিচের ওপরে এই তাপমাত্রা আরও প্রায় ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি থাকে। আর কালো হওয়ায় এই পিচ সূর্যের তাপও শোষণ করে বেশি। এছাড়া সড়কে চাকার ঘর্ষণের ফলে উৎপাদিত তাপও এর সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় পিচ গলে যেতে পারে। তবে এর বাইরে সড়কের কাজের মান নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

ঈশ্বরদী উপজেলা প্রকৌশলী এনামুল কবির বলেন, সড়কের বিটুমিনের পরিমাণ সঠিক রয়েছে। কোনো সমস্যা নেই। প্রচণ্ড তাপের কারণে শহরের পোস্ট অফিস মোড় সড়কে বিটুমিন গলে যাচ্ছে। পাবনা সড়ক ও জনপথ বিভাগ থেকে বিটুমিন গলে যাওয়ার উপক্রম স্থানগুলোতে বালু দেওয়া হয়েছে। এতে আর কোনো সমস্যা হবে না।

ঈশ্বরদী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগার সূত্রে জানা যায়, গত ১৫ দিন যাবত ঈশ্বরদীতে তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে চলেছে। এর মধ্যে ১৩-১৬ এপ্রিল পর্যন্ত মাঝারি তাপপ্রবাহ বিরাজমান ছিল। ১৭ থেকে ২৭ এপ্রিল পর্যন্ত তীব্র ও অতি তীব্র তাপপ্রবাহ বিরাজমান রয়েছে।

আবহাওয়া অফিস সূত্র জানায়, ঈশ্বরদীতে ১৭ এপ্রিল ৪০ দশমিক ৫ ডিগ্রি, ১৮ এপ্রিল ৪০ ডিগ্রি, ১৯ এপ্রিল ৪১ ডিগ্রি, ২০ এপ্রিল ৪১.৬ ডিগ্রি, ২১ এপ্রিল ৪২ ডিগ্রি, ২২ এপ্রিল ৪০.৫ ডিগ্রি, ২৩ এপ্রিল ৪০.৩ ডিগ্রি, ২৪ এপ্রিল ৪১.২ ডিগ্রি, ২৫ এপ্রিল ৪০.৫ ডিগ্রি, ২৬ এপ্রিল ৪২.৪ ডিগ্রি এবং আজ ২৭ এপ্রিল ৪১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।

সর্বশেষ - ঈশ্বরদী

error: Content is protected !!