রবিবার , ১১ জুন ২০২৩ | ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ঈশ্বরদী
  5. করোনাভাইরাস
  6. কৃষি
  7. ক্যাম্পাস
  8. খেলাধুলা
  9. গল্প ও কবিতা
  10. চাকরির খবর
  11. জাতীয়
  12. তথ্যপ্রযুক্তি
  13. তারুণ্য
  14. ধর্ম
  15. নির্বাচন

রূপপুর প্রকল্পের অগ্রগতি পরিদর্শন করলেন জ্বালানী উপদেষ্টা

প্রতিবেদক
আমাদের রূপপুর প্রকল্প :
জুন ১১, ২০২৩ ১:২৭ অপরাহ্ণ

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের প্রথম ইউনিট এবং গ্রীড নির্মাণ কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করেছেন জ্বালানী উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বীর বিক্রম। শনিবার (১০ জুন) তিনি ঈশ্বরদীর রূপপুরে প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন ছাড়াও বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এবং বিদ্যুৎ ও জ্বালানী মন্ত্রণালয়ের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করেন।

জানা গেছে, প্রথম ইউনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদনকে সামনে রেখে যে সকল মাইলস্টোন রয়েছে সেগুলো হলো : চলতি বছরের অক্টোবরের মধ্যে জ্বালানী প্রাপ্তি, আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে জ্বালানী লোডিং ও স্টার্ট-আপ (Start-up) সম্পন্ন করে, গ্রীডের সঙ্গে সিংক্রোনাইজেশন (Synchronization) এবং ইভ্যাকুয়েশন (Evacuation)। অর্থাৎ গ্রীডের সাথে খাপ খাওয়ানো বা সমন্বয় বিধান ও গ্রীডে বিদ্যুৎ সঞ্চালন শুরু, যা পর্যায়ক্রমে করা হবে।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারি ড. শহীদ হোসাইন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব জিয়াউল হাসান, বিদ্যুৎ ও জ্বালানী মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হাবিবুর রহমান, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান, পাওয়ার সেল এর মহাপরিচালক প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন, জ্বালানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ড. মনীরা সুলতানা, পিজিসিবি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুম আলম বকসি, ঈশ্বরদীর ইউএনও সুবীর কুমার দাস, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ঈশ্বরদী সার্কেল) বিপ্লব কুমার গোস্বামীসহ দুই মন্ত্রণালয় এবং রূপপুর এনপিপি’র উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রকল্প পরিচালক ড. শৌকত আকবর জ্বালানী উপদেষ্টার পরিদর্শনের খবর নিশ্চিত করে জানান, অক্টোবরের মধ্যে প্রথম ইউনিটের জ্বালানী (ইউরেনিয়াম) পাওয়া যাবে। আগামী বছরের মাঝামাঝি জ্বালানী লোডিং করে স্টার্ট-আপ (Start-up) করা হবে। স্টার্ট-আপের পর গ্রীডের সাথে খাপ খাওয়ানো বা সমন্বয় বিধান ও গ্রীডে বিদ্যুৎ সঞ্চালন শুরুর জন্য গ্রীড সিংক্রোনাইজেশন (Synchronization) এবং ইভ্যাকুয়েশন (Evacuation) কার্যক্রম পরিচালিত হবে। এসব লক্ষ্যকে সামনে নিয়ে রূপপুর প্রকল্প কর্তৃপক্ষ কাজ করছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই গ্রীড প্রস্তুত হয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। প্রকল্পের এবং গ্রীড নির্মাণ কাজের অগ্রগতি ও দুই প্রকল্পের কাজের সমন্বয় করতেই জ্বালানী উপদেষ্ঠা প্রকল্প ভিজিটে এসেছেন। প্রকল্পের সাথে পিজিসিবি’র কাজের সমন্বয়ের জন্য তিনি দুই মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও নির্দেশনা দিয়েছেন। আমরা অত্যন্ত আশাবাদী নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই গ্রীডে বিদ্যুৎ ইভাকুয়েশন শুরু করা যাবে বলে জানান শৌকত আকবর।

সর্বশেষ - ঈশ্বরদী

আপনার জন্য নির্বাচিত
error: Content is protected !!